৫ কৌশলে বাড়িয়ে নিন আত্মবিশ্বাস

একটা আত্নবিশ্বাসী ইন্টারভিউ বদলে দিতে পারে জীবনের মোড়। ব্যক্তিত্বের দৃঢ়তা এমনকি কমিয়ে দেয় শত্রু, বাড়িয়ে দেয় জনপ্রিয়তা। সফল হতে হলে নিজের উপর বিশ্বাস লগবেই। দুরু দুরু মন নিয়ে কে কবে কঠিন পথ পারি দিতে পেরেছে?
জীবনের পথ সবসময়ই কঠিন। সবাই হাত ছেড়ে যেতে পারে, বন্ধুত্ব শেষ হয়ে যেতে পারে, কাছের মানুষ সারাজীবন আপনার কাছে নাও থাকতে পারে। তাই জীবনের এই পথে নিজের নিরন্তর বন্ধু আপনি নিজেই। আপনি যদি নিজের উপর বিশ্বাস না রাখতে পারেন তাহলে এগিয়ে যাওয়া হবে খুবই কঠিন। পড়াশোনা, ক্যারিয়ার সবখানে আপনার সবচেয়ে বড় শক্তি নিজের উপর আপনার আস্থা, আত্মবিশ্বাস। আসুন জানি সহজ ৫ টি উপায়ে কীভাবে বাড়াবেন আপনার আত্মবিশ্বাস।
নিজেই হন নিজের বিচারক
নিজের গুণগুলোকে খুজে দেখুন। আপনি হয়ত ভাল ছবি আঁকতে পারেন, হয়ত ভাল গান করেন, অথবা হয়ত সুন্দর করে গুছিয়ে কথা বলতে পারেন। হয়ত আপনি ঘর সাজাতে পটু। অথবা আড্ডা জমিয়ে দিতে আপনার জুড়ি নেই। এর কোনটাই যদি না হয় তাহলে খেয়াল করে দেখুন, নিশ্চই আপনি একজন ভাল মানুষ, কারো ক্ষতি করেন না। নিজের গুনগুলোকে মূল্যায়ণ করুন। নিজের প্রশংসা করুন। যা করতে ভালবাসেন তার চর্চা করুন, নিয়মিত অল্প সময়ের জন্য হলেও। নিশ্চিতভাবে আপনার আত্মবিশ্বাস বাড়বে।
নেতিবাচক মানুষকে এড়িয়ে চলুন
আমাদের আশপাশে এমন অনেক মানুষ থাকে যারা সবসময় আমাদের ভুলত্রুটিকে বড় করে তুলে ধরে। এমন মানুষ থেকে দূরে থাকুন। আপনার প্রিয় বন্ধুটি যতই বুদ্ধিমান, জ্ঞানী হোক না কেন তার সাহচার্যে আপনি যদি নিজেকে ছোট অনুভব করেন তাহলে তাকে এড়িয়ে চলুন। নিজের সম্পর্কে নেতিবাচক ধারণা আত্মবিশ্বাসহীনতার মূল কারণ। তাই এমন ধারণা দেয় এমন মানুষের কাছ থেকে দূরে থাকুন। এমনকি কোন কাজও আপনাকে ভুল ধারণা দিতে পারে আপনার ব্যাপারে। আপনি হয়ত এমন কোন কাজ করছেন যাতে আপনি দক্ষ নন। প্রশিক্ষণ নিয়ে সেই কাজটি করুন। অযথা ব্যার্থতার দায়ভার নেবেন না।
দক্ষ হন
এখন যেকোন বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিয়ে দক্ষতা বৃদ্ধি করা সম্ভব। এমনকি ঘরে বসে অনলাইনে আপনি বিভিন্ন কোর্স করতে পারবেন, পরীক্ষা দিতে পারবেন, আপনার স্কোর তুলনা করে আবার ভাল করার জন্য চেষ্টা করতে পারবেন। নিজেই নিজেকে তৈরি করতে উদ্যোগী হন।
নিজেকে বড় স্বপ্ন দেখতে শেখান
পৃথিবীতে এমন অনেক মানুষ আছেন যারা হয়ত শুরুতে তেমন সফল ছিলেন না। হয়ত অনেক দুঃখ দারিদ্র মোকাবেলা করে আজ তারা সফল। তাদের গল্প পড়ুন। অনুপ্রেরণা নিন। তাদের মত একদিন আপনিও পারবেন। শুধু নিজের উপর বিশ্বাস রাখতে হবে।
ভুল স্বীকার করুন, অন্তত নিজের কাছে
যত দক্ষ মানুষই হোন না কেন ভুল আপনার হবেই। আবার হয়ত হঠাৎ রেগে যাওয়া, মনোযোগ দিয়ে কাজ করতে না পারা ইত্যাদি সমস্যা আপনার রয়েছে। এগুলো স্বীকার করে নিন। স্বীকার করা মানে ছোট হওয়া নয়। বরং যেই সময় থেকে আপনি জেনে গেলেন আপনার কি কি ত্রুটি তখন থেকে নিজেকে গড়তে আপনি খুঁজে পাবেন সঠিক পথ।
সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন বিষয় হচ্ছে, নিজেকে জানুন এবং কিভাবে তৈরি করবেন নিজেকে সেটা ঠিক করে ফেলুন। আর কেউ না থাকুক, আপনি তো আছেন নিজের সাথে। সফল আপনি নিশ্চই হবেন। বিশ্বাস রাখুন।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on whatsapp
Share on telegram
Share on pocket

এরকম আরও নিউজ