মেডিক্যাল কলেজে কোথায় কেমন খরচ হয়

সরকারি মেডিক্যাল কলেজে এমবিবিএস কোর্সে খরচ হয় ৩৫ হাজার টাকা। ফাইনাল পরীক্ষায় পাস করার পর ১ বছরের ইন্টার্নশিপে মাসে দেওয়া হয় ১০ হাজার টাকা করে। ইউনিভার্সেল মেডিক্যাল কলেজের চেয়ারম্যান প্রীতি চক্রবর্তী জানান, ‘বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজগুলোতে সরকার নির্ধারিত ভর্তি ফি ১৩ লাখ ৯০ হাজার। এ ছাড়া ইন্টার্নশিপের জন্য গুনতে হয় এক লাখ ২০ হাজার টাকা। সব মিলিয়ে ভর্তির সময় সর্বোচ্চ ১৫ লাখ ১০ হাজার টাকা নিতে পারে কোনো মেডিক্যাল কলেজ। তবে কোনো প্রতিষ্ঠান চাইলে এর চাইতে কমেও ভর্তি করতে পারে।’
বিভিন্ন মেডিক্যাল কলেজের ওয়েবসাইট ও বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ মেডিক্যাল কলেজে ১৪ লাখ ৮০ হাজার, ঢাকা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজে ১৫ লাখ ১০ হাজার, হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিক্যাল কলেজে ১৫ লাখ, শাহাবুদ্দিন মেডিক্যাল কলেজে ১৬ লাখ, ইব্রাহিম মেডিক্যাল কলেজে ১৫ লাখ, নর্দান ইন্টারন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজে ১৩ লাখ ৯০ হাজার টাকা, ইবনে সিনা মেডিক্যাল কলেজে ১৫ লাখ, শিকদার উইমেন্স মেডিক্যাল কলেজে ১৬ লাখ ৭২ হাজার, ইস্ট ওয়েস্ট মেডিক্যাল কলেজে ১৩ লাখ, এনাম মেডিক্যাল কলেজে ১৪ লাখ, আদ-দ্বীন মেডিক্যাল কলেজে ১১ লাখ ৯৮ হাজার, উত্তরা উইমেন্স মেডিক্যাল কলেজে ১৩ লাখ ২৫ হাজার এবং কমিউনিটি মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি ফি ১১ লাখ ৯৫ হাজার টাকা।

ক্যাম্পাসের উন্নয়ন, টিউশন, অ্যাফিলিয়েশন ফি, বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রেশন, বিএমডিসি রেজিস্ট্রেশন, মার্কশিট ভেরিফিকেশন, কেন্দ্র ফি, কলেজ ম্যাগাজিন ফি, গেমস, স্পোর্টস ও অন্যান্য বিনোদন ফি, পরিচয়পত্র, কশন, লাইব্রেরি চার্জ, বিবিধ, সেশন, লাইব্রেরি, জেনারেল ল্যাব ফি, কম্পিউটার ল্যাব, ইন্টার্নশিপ অনারিয়াম, মার্কশিট ভেরিফিকেশন, আবাসিক সুবিধা থাকা-খাওয়া বাবদ শিক্ষার্থীদের ফি জমা দিতে হয়। এসব ফি আবার জমা দিতে হয় প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব নিয়মে। কোনো কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান অগ্রিম সব খরচ নিয়ে নেয়। কোথাও আবার মাসিক ফি দিতে হয়।