মাসে ১২০০ টাকা ভাতাসহ প্রশিক্ষন

দেশের বেকার যুবক ও যুব মহিলাদের দক্ষতা বাড়ানো, কর্মসংস্থান ও আত্মকর্মসংস্থানে নামমাত্র খরচে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর। গবাদি পশু, হাঁস-মুরগি পালন, মৎস চাষ ও কৃষি এবং প্রাথমিক চিকিৎসা বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। সারা দেশে প্রায় তিন হাজারজন তিন মাসের এ প্রশিক্ষণে অংশ নেওয়ার সুযোগ পাবেন।

যারা প্রশিক্ষণ নিতে পারবেন

প্রশিক্ষণ নিতে চাইলে কমপক্ষে অষ্টম শ্রেণি পাস হতে হবে। বয়স হতে হবে ১৮ থেকে ৩৫ বছরের মধ্যে। তবে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের পোষ্যদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা শিথিলযোগ্য।

আবেদন ও বাছাই প্রক্রিয়া

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে (.ৎফুফ.মড়া.নফ) আবেদন ফরম পাওয়া যাবে। অথবা জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক/কো-অর্ডিনেটর/ ডেপুটি

কো-অর্ডিনেটরের কার্যালয় এবং উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তার কার্যালয় থেকেও বিনা মূল্যে ফরম সংগ্রহ করা যাবে। প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ পূরণকৃত ফরম জমা দিতে হবে ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার/উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তার কার্যালয়/জেলা কার্যালয় বা যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে। আবেদনপত্র জমা দিতে হবে ২৭ জুলাইয়ের মধ্যে। ২৮ জুলাই প্রত্যেক প্রার্থীর নিজ নিজ উপজেলা যুব উন্নয়ন কার্যালয়ে সাক্ষাত্কার নেওয়া হবে। প্রশিক্ষণ শুরু হবে ১ আগস্ট থেকে।

মিলবে ভাতা

কোর্সে ভর্তির সময় প্রার্থীকে ১০০ টাকা ভর্তি ফি এবং জামানত হিসেবে আরো ১০০ টাকা জমা দিতে হবে। জামানতের টাকা ফেরত দেওয়া হবে কোর্স শেষে। উপস্থিতির ভিত্তিতে প্রতি মাসে প্রার্থীকে ১২০০ টাকা ভাতা দেবে অধিদপ্তর। তবে কুড়িগ্রামের অনাবাসিক প্রার্থীদের দেওয়া হবে ৭০০ টাকা হারে ভাতা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on whatsapp
Share on telegram
Share on pocket

এরকম আরও নিউজ