প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে ডিজিটাল পদ্ধতির প্রশ্ন!

Ed_sm_849194397

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগে ডিজিটাল পদ্ধতিতে প্রশ্ন প্রণয়ন করে তা পরীক্ষার দিন তাৎক্ষণিকভাবে কেন্দ্রে পাঠানো হবে। প্রশ্ন ফাঁস এড়াতে এ পদ্ধতিতে প্রশ্ন প্রণয়ন ও পাঠিয়ে আগামী মাসে দু’টি নিয়োগ পরীক্ষা গ্রহণ করবে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা বাংলানিউজকে এতথ্য জানিয়েছেন।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. আলমগীর বাংলানিউজকে বলেন, বিশেষজ্ঞ কমিটির সভায় প্রশ্ন প্রণয়ন ও বিররণের বিষয়টি চূড়ান্ত করা হবে।

দুটি বিজ্ঞপ্তির আওয়াতায় বর্তমানে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক-প্রাথমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগের অপেক্ষায় রয়েছে।

প্রাক-প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগের জন্য গত ১০ ডিসেম্বর একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। তৃতীয় প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচির (পিইডিপি-৩) আওতায় এই বিজ্ঞপ্তির আলোকে অস্থায়ীভাবে প্রায় ১৬ হাজার শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে।

এর আগে ১৫ সেপ্টেম্বর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগের আকেটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। এতে ১০ হাজারের উপরে শিক্ষক নিয়োগ দেবে সরকার।

প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগের পর বুয়েটসহ আইটি বিশেষজ্ঞদের নিয়ে একটি ‘বিশেষজ্ঞ কমিট ‘ গঠন করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। ডিজিটাল পদ্ধতিতে প্রশ্ন তৈরি ও বিতরণের জন্য কমিটি কয়েকটি সভাও করেছে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. আলমগীর জানান, এক সপ্তাহের মধ্যে মন্ত্রণালয়ের সভায় প্রশ্ন পদ্ধতির বিষয়টি চূড়ান্ত হবে।

আগামী মাসে প্রথমে প্রাক-প্রাথমিক এবং পরে প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on whatsapp
Share on telegram
Share on pocket

এরকম আরও নিউজ