পে-স্কেলে প্রতিশ্রুতির বরখেলাপ!

নতুন জাতীয় বেতন স্কেলে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের সরকারের দেওয়া প্রতিশ্রুতি বরখেলাপ করা হয়েছে বলে দাবি করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি।
রোববার সমিতির কার্যকরী পরিষদের এক জরুরি সভায় বলা হয়, জাতীয় অধ্যাপকদের জ্যৈষ্ঠ সচিবদের পর্যায়ে এনে এই বরেণ্য ব্যক্তিদের অপমান করা হয়েছে। প্রকাশিত গেজেট ফের পর্যালোচনা ও সরকারের প্রতিশ্রুতিগুলো পূরণের দাবি জানিয়েছে সমিতি।
govment logo
সভায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের জন্যে জাতীয় বেতন কাঠামো সংক্রান্ত প্রকাশিত গেজেট এবং অর্থ বিভাগ, অর্থ মন্ত্রণালয়ের একজন অতিরিক্ত সচিবের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো কিছু সুপারিশ সমন্বিত একটি পত্রের ওপরে বিশদ আলোচনা হয়।
সভায় বলা হয়, বেতন কাঠামো পর্যালোচনায় দেখা যায়, বর্তমান অবস্থায় অষ্টম জাতীয় বেতন কাঠামো বাস্তবায়িত হলে সপ্তম জাতীয় বেতন কাঠামোর তুলনায় গ্রেড-১ প্রাপ্ত শিক্ষকদের সংখ্যা অর্ধেক কিংবা তারও নিচে নেমে আসবে। উপরন্তু গ্রেড-১ প্রাপ্ত শিক্ষকদের সুপারগ্রেডের ২য় ধাপে যাওয়ার কোনোও সুযোগ ও নির্দেশনা এই গেজেটে কিংবা অন্য কোনো পরিপত্রে এ পর্যন্ত পরিলক্ষিত হয়নি। যদিও গত ৬ ডিসেম্বর অর্থমন্ত্রী তার বাসভবনে শিক্ষক প্রতিনিধিদের এক বৈঠকে এ বিষয়ে সুস্পষ্ট আশ্বাস দিয়েছিলেন।
সভায় শিক্ষক নেতারা বলেন, আমরা পরিতাপের সঙ্গে লক্ষ্য করেছি উল্লেখিত প্রথম দু’টি প্রতিশ্রুতির সম্পূর্ণ বরখেলাপ এই বেতন কাঠামোতে করা হয়েছে। আরও পরিতাপের বিষয় যে, জাতীয় অধ্যাপকদের জ্যৈষ্ঠ সচিবদের পর্যায় এনে এই বরেণ্য ব্যক্তিদের যেমন অপমান করা হয়েছে, অন্যদিকে তাদের পে-রুলে আনার এই প্রচেষ্টার মধ্যদিয়ে জাতীয় বেতন কাঠামোকে করা হয়েছে বিতর্কিত।
চলতি সপ্তাহের মধ্যে শিক্ষক প্রতিনিধিদের সাথে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে প্রতিশ্রুতি পূরণসহ অষ্টম জাতীয় বেতন কাঠামোতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সব অসঙ্গতি দূরীকরণের দাবি জানান তারা। শিক্ষক নেতারা বলেন, অন্যথায় সৃষ্ট পরিস্থিতির জন্য শিক্ষক সমাজ দায়ী থাকবে না।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on whatsapp
Share on telegram
Share on pocket

এরকম আরও নিউজ