পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষার মানোন্নয়ন ও সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে কড়া নজরদারিঃ শিক্ষামন্ত্রী

educarnival

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষার মানোন্নয়ন ও সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে কড়া নজরদারি শুরু করেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। এজন্য নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) এবং বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সর্বোচ্চ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করে দিক নির্দেশনা দেবেন মন্ত্রী। পাশাপাশি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর একাডেমিক কার্যক্রম, শাখা খোলা, নিজস্ব ক্যাম্পাস স্থাপন ইত্যাদি বিষয়ে ইউজিসি’র কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনাও করবেন তিনি। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছোটখাট সমস্যার কথা জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর শিক্ষার পরিবেশ ও পাঠদান কার্যক্রম সুষ্ঠু রাখতে পর্যায়ক্রমে সবার সঙ্গে আলোচনা করবো। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে জ্ঞানচর্চা, গবেষণা ও যুগোপযোগী পাঠদান পদ্ধতি নিয়েও কথা হবে।

অষ্টম বেতন কাঠামো এবং পদ মর্যাদা নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মধ্যে যাতে অসন্তোষ সৃষ্টি না হয়- সে বিষয়টিও এ আলোচনায় গুরুত্ব পাবে বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়। আজ সোমবার (২৭ জুলাই ২০১৫) বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) চেয়ারম্যান, কমিশনের দুই সদস্য (পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়) এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে এ বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। অস্থির পরিস্থিতির মধ্যে থাকা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটির কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক সেরেছেন শিক্ষামন্ত্রী।

নিয়োগ, পদোন্নতি, চাকরি স্থায়ীকরনসহ বিভিন্ন কারণে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি), জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি), ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি), বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) অস্থিরতা বিরাজ করছে। এ প্রেক্ষাপটে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সর্বোচ্চ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বসছেন মন্ত্রী। গত ২৩ জুলাই শাবিপ্রবি’র শিক্ষক প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা করে আন্দোলনরত শিক্ষকদের আন্দোলনের গতি-প্রকৃতি শোভন করার পাশাপাশি অ্যাকাডেমিক ও প্রশাসনিক কাজে আত্মনিয়োগ করার পরামর্শ দেন শিক্ষামন্ত্রী। সেই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্যকে মন্ত্রণালয়ে ডেকে রুটিন দায়িত্ব পালন ছাড়া নতুন কোনো নিয়োগ প্রদান না করার সিদ্ধান্ত দেন মন্ত্রী। এতে দীর্ঘ ৩২ দিনের অচলাবস্থার অবসান হয়।

বিতর্কিত তিন ছাত্রলীগ নেতা এবং দুই কর্মকর্তার স্বজনসহ মোট ছয়জনকে কর্মকর্তা পদে নিয়োগ দিয়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের বিরুদ্ধে সমালোচনার সৃষ্টি হয়। রোববার বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্যসহ শিক্ষক প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলেন মন্ত্রী। নিয়োগ-পদোন্নতিসহ অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে অস্থিরতা চলছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়েও। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষের সঙ্গেও কথা বলবেন বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on whatsapp
Share on telegram
Share on pocket

এরকম আরও নিউজ