পরিবর্তন হচ্ছে সেনা ও বিমান বাহিনীর প্রধানের পদের নাম

সেনা এবং বিমানবাহিনী প্রধানের পদের নামে পরিবর্তন আনা হচ্ছে। সম্প্রতি সংসদে আর্মি অ্যাক্ট-২০১৫ এবং এয়ার ফোর্স অ্যাক্ট-২০১৫ নামে দুটি বিল উত্থাপন করা হয়েছে। নতুন উত্থাপিত এই বিলেই সেনা এবং বিমানবাহিনীর প্রধানের পদের নাম বদলের প্রস্তাব করা হয়েছে।

bangladesh-army-and-air-force-logoএই বিলে ১৯৭৬ সালের অধ্যাদেশে ব্যবহৃত সেনাবাহিনীর প্রধানের পদবি ‘কমান্ডার ইন চিফ’-এর স্থলে ‘চিফ অব আর্মি স্টাফ’ এবং বিমান বাহিনীর প্রধানের পদবি ‘কমান্ডার ইন চিফ’-এর স্থলে ‘চিফ অব এয়ার স্টাফ’ পদবি প্রতিস্থাপন করে সংসদে উস্থাপন করেন জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। পাশাপাশি ‘ক্যাডেট কলেজ অ্যাক্ট- ২০১৫’ নামের আরো একটি বিল মহান সংসদে উত্থাপন করেন তিনি।

উত্থাপিত এই বিলে বলা হয়, ‘সংবিধান পঞ্চদশ সংশোধনী আইন-২০১১’ দিয়ে সংবিধানের ‘চতুর্থ তফসিলের ১৮ অনুচ্ছেদ’ বিলুপ্ত হয় অনেক আগেই। ফলে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট থেকে ১৯৭৯ সালের ৯ এপ্রিল পর্যন্ত সময়ের মধ্যে জারিকৃত অধ্যাদেশগুলো কার্যকারিতা হারায়। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের ‘দি আর্মি (এমেন্ডমেন্ট) অর্ডিন্যান্স-১৯৭৬’ ও ‘দি এয়ার ফোর্স (এমেন্ডমেন্ট) অর্ডিন্যান্স-১৯৭৬’ নামে অধ্যাদেশ দুটি ওই সময়ে জারি করা হয়েছিল। যা আজ আর কার্যকর নেই।

এই বিলের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়, বিল দুটি আইনে রূপান্তরিত হলে ১৯৭৬ সালের অধ্যাদেশে ব্যবহৃত সামরিক বাহিনীর প্রধানের পদবি ‘কমান্ডার ইন চিফ’-এর পরিবর্তে ‘চিফ অব আর্মি স্টাফ’ এবং বিমান বাহিনীর প্রধানের পদবি ‘কমান্ডার ইন চিফ’-এর পরিবর্তে ‘চিফ অব এয়ার স্টাফ’ পদবি প্রতিস্থাপিত হবে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on whatsapp
Share on telegram
Share on pocket

এরকম আরও নিউজ