জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কাণ্ড!

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনলাইন ভর্তি কার্যক্রম ফের বিতর্কের জন্ম দিয়েছে। রিলিজ স্লিপ নিয়ে ভর্তির ক্ষেত্রে অনেককে এমন কলেজ ও বিষয় নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে, যে কলেজে ওই বিষয় পড়ানোই হয় না। এতে ভর্তি নিয়ে অনিশ্চয়তায় পড়েছেন অসংখ্য শিক্ষার্থী। এর আগে চাঁপাইনবাবগঞ্জে অশ্লীল ছবি যুক্ত করে অনলাইনে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ভর্তির ফরম পূরণ করার ঘটনা হাস্যরসের জন্ম দিয়েছিল।

48869

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের রিলিজ স্লিপ নিয়ে রবিবার (১৭ জানুয়ারি) লালমাটিয়া মহিলা কলেজে দর্শন বিষয়ে সম্মান শ্রেণিতে ভর্তি হতে যান তাসমীম সিদ্দিকী ইমু। কিন্তু, তাকে চোখে পানি নিয়ে ফেরত আসতে হয়েছে। ওই কলেজে দর্শন বিষয়টি পড়ানোই হয় না। অথচ, রিলিজ স্লিপে তাকে লালমাটিয়া কলেজে ওই বিষয়েই ভর্তির অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

২০১৫ সালে এইচএসসি পাস করা ইমু বলেন, ”পাশ করার পর অনলাইনে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ইডেন মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে অনার্স ১ম বর্ষে ভর্তির জন্য আবেদন করি। যার রোল নম্বর- ৫৮০৩৪৪৩। প্রথম ও দ্বিতীয় মেধাতালিকায় আমি স্থান পাইনি। পরবর্তীতে রিলিজ স্লিপের জন্য অনলাইনে আবেদন করতে বলা হয়। আমি যথানিয়মে ৫টি কলেজে পছন্দ অনুযায়ী সাবজেক্ট নির্ধারণ করে আবেদন করি। যথাক্রমে লালমাটিয়া মহিলা কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, তেজগাঁও মহিলা কলেজ, তিতুমির কলেজ, তেজগাঁও কলেজে ভর্তির জন্য আবেদন করি। আবেদনের ভিত্তিতে লালমাটিয়া মহিলা কলেজে দর্শন (ফিলোসফি) বিষয়ে আমাকে ভর্তির জন্য অনুমতি দেওয়া হয়। সেই মোতাবেক আমি অাজ (১৭/০১/২০১৬) ভর্তির জন্য যাবতীয় কাগজপত্র নিয়ে লালমাটিয়া মহিলা কলেজে যাই। কলেজে গিয়ে শুনি লালমাটিয়া মহিলা কলেজে ফিলোসফি কোন সাবজেক্টই নেই। এখন আমি কোথায় কীভাবে ভর্তি হবো? জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের গাফিলতির দায়-দায়িত্ব কি আমাকে নিতে হবে?”

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on whatsapp
Share on telegram
Share on pocket

এরকম আরও নিউজ