ইংরেজি বিষয়ের ক্লাস ইংরেজিতেই নিতে হবে: মাউশি

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা স্তরের মানোন্নয়ন এবং শিক্ষার্থীদের মধ্যে দেশপ্রেম, নৈতিক মূল্যবোধ অর্জন ও অনুশীলনের লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠান প্রধানদের করণীয় নির্ধারণ করে দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)।

মঙ্গলবার (১৭ অক্টোবর) অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. এসএম ওয়াহিদুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক আদেশে শিক্ষার্থীদের ইংরেজি বিষয়ের ক্লাস ইংরেজিতেই পরিচালনা করা, মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার গল্প শোনানো, মুক্তিযুদ্ধের বই পড়ার উপর গুরুত্ব দেওয়াসহ আটটি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

অনলাইন ভিত্তিক গেম ব্লু হোয়েল নিয়ে কিশোর-কিশোরীদের আসক্তির মধ্যে এ নির্দেশনা দিল মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা স্তরের নিয়ন্ত্রক প্রতিষ্ঠান মাউশি।

চিঠিতে বলা হয়েছে, দেশের প্রতিটি শিক্ষার্থীকে দেশপ্রেমিক, নৈতিক মূল্যবোধ সম্পন্ন মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। এসব শিক্ষার্থীই আধুনিক ডিজিটাল বাংলাদেশ ভবিষ্যত বির্নিমাণের হাতিয়ার। এ গুণাবলী স্বল্প সময়ের মধ্যে অর্জন করা সম্ভব হয় না। এটি সাধনা ও অধ্যাবসায়ের মাধ্যমে ধীরে ধীরে অর্জন করতে হয়। তাই শৈশব থেকেই এ গুণগুলো চর্চার মাধ্যমে অভ্যাসে পরিণত করতে হবে যেন তারা বাস্তব জীবনে প্রয়োগ করতে পারে। এছাড়াও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মানোন্নয়নের জন্য প্রতিষ্ঠান প্রধানগণ প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করবেন।

এ লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠান প্রধানদের করণীয় ঠিক করে দিয়েছে অধিদফতর।

এর মধ্যে রয়েছে, বছরের শুরুতেই শিক্ষার্থীদের কাছে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস তুলে ধরে মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার গল্প শোনানো। প্রতিষ্ঠানের লাইব্রেরিতে শিক্ষার্থীদের নাগালের মধ্যে ওপেন শেলফে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ দলিলপত্র (১৫ খণ্ড) সেটটি পড়ার জন্য উন্মুক্ত রাখতে হবে। নৈতিক মূল্যবোধ ও মূল্যবোধ সংক্রান্ত দু’টি নৈতিক বাক্য শিক্ষার্থীরা অ্যাসেম্বলিতে পাঠ করবে। দেয়ালে নৈতিক বাক্য লেখা থাকবে। শিক্ষকগণ ক্লাসে দু’টি নৈতিক বাক্য ব্যাখা করবেন যেন শিক্ষার্থীরা এটি বাস্তব জীবনে প্রয়োগ করতে পারে। মাল্টিমিডিয়া ব্যবহার করে শ্রেণি শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে। ইংরেজি বিষয়ের ক্লাস ইংরেজিতেই পরিচালনা করতে হবে। ইন-হাউজ-ফ্যাকাল্টি ডেভেলপমেন্ট প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে। শিক্ষাঙ্গনকে সবুজায়ন করতে হবে। জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল অনুশীলন করতে হবে।

করণীয় বিষয়সমূহ প্রতিষ্ঠান প্রধানগণ বাস্তবায়ন করবেন এবং পরিদর্শন টিম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনকালীন উল্লিখিত বিষয়গুলো বিবেচনায় আনবেন বলে আদেশে উল্লেখ করা হয়েছে।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অঞ্চলের সব পরিচালক, সব সরকারি-বেসরকারি কলেজ, সব মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অঞ্চলের উপ পরিচালক, সব সরকারি-বেসরকারি স্কুলের প্রধান শিক্ষক, সব উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলেছে অধিদফতর।

সূত্রঃ বাংলানিউজ২৪ডটকম

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on whatsapp
Share on telegram
Share on pocket

এরকম আরও নিউজ